এবার ১২ ঘন্টা সম্প্রচারে বিটিভি চট্টগ্রাম কেন্দ্র

আব্দুল করিম, চট্টগ্রামঃ
বাংলাদেশ টেলিভিশন চট্টগ্রাম কেন্দ্র (সিটিভি) প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাত ধরেই পথচলা শুরু হয় ১৯৯৬ সালের ১৯ ডিসেম্বর। এরপর থেকে কখনও ৩ ঘন্টা, কখনও ৬ ঘন্টা আবার কখনও ৯ ঘন্টা সম্প্রচার সময় পেরিয়ে বর্তমানে এসে পৌঁছেছে ১২ ঘন্টায়।

রোববার (২৬ জানুয়ারি) প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাতেই হতে যাচ্ছে এই কেন্দ্রের ১২ ঘন্টার সম্প্রচারের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন। সকালে চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে এই কেন্দ্রের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করবেন তিনি।বাংলাদেশ টেলিভিশন চট্টগ্রাম কেন্দ্র (সিটিভি)’র প্রতি প্রধানমন্ত্রীর এমন আন্তরিকতায় বিশেষ ধন্যবাদ প্রকাশ করেছেন চট্টগ্রামের শিল্পীরা। কিন্তু সম্প্রচার সময় বাড়ার সাথে সাথে অনুষ্ঠানের মানোন্নয়ন না হওয়ায় হতাশা ব্যক্ত করেছেন চট্টগ্রামের শিল্পী, সঙ্গীত পরিচালক ও সংস্কৃতি সংশ্লিষ্টরা।সংশ্লিষ্টরা বলছেন, শুধুমাত্র সিটিভি কর্তৃপক্ষের উদাসীনতার কারণেই একে একে ভেস্তে যাচ্ছে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সব উদ্যোগ।

বাংলাদেশ টেলিভিশন (বিটিভি)’র তালিকাভুক্ত সঙ্গীত পরিচালক ফরিদ বঙ্গবাসী বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ সিটিভির প্রতি সুনজর দেওয়ার জন্য। আমরা চাই সম্প্রচার শুধু ১২ ঘন্টা নয়, যেন ২৪ ঘন্টায় হয়। সবকিছুই হচ্ছে, তবে মান নেই।একজন সঙ্গীত পরিচালক হিসেবে দায়িত্ব নিয়ে বলতে পারি চট্টগ্রাম কেন্দ্রে অন্তত গানের যেসব প্রোগ্রাম হচ্ছে কোনও মান নেই।সম্প্রচার সময় বৃদ্ধির পাশাপাশি সিটিভির অনুষ্ঠানমালার মান না বাড়ার কারণ হিসেবে অনেকেই বলছেন, লাগামহীন দুর্নীতির কথা। তবে সিটিভি কর্তৃপক্ষের দাবি- দুর্নীতি নয় বরং ঘাটতি রয়েছে জনবল এবং প্রযুক্তিগত বিষয়ে।

চট্টগ্রামের শিল্পী এবং সিটিভি কর্তৃপক্ষের এমন বির্তকের মুখে বৃহস্পতিবার (২৩ জানুয়ারি) চট্টগ্রাম টেলিভিশন কেন্দ্রের দু্র্নীতির অভিযোগ এনে সংবাদ সম্মেলন করেছেন চট্টগ্রাম শিল্পী সংসদ নামের একটি শিল্পী গোষ্ঠী। চট্টগ্রামের প্রেসক্লাবে স্থানীয় শিল্পীদের নিয়ে আয়োজিত এই সংবাদ সম্মেলনে শিল্পীরা জানান, সরকারি পর্যাপ্ত বাজেটের পরও মানসম্পন্ন অনুষ্ঠান হচ্ছে না সিটিভিতে। এছাড়াও বার বার প্রচারিত হওয়া অনুষ্ঠানসূচিতে দেওয়া হয় না অনুষ্ঠানটি কত বার প্রচারিত হচ্ছে। ফলে প্রতারিত হচ্ছেন সিটিভির দর্শক।চট্টগ্রাম শিল্পী সংসদের সাধারণ সম্পাদক দিদারুল ইসলাম বলেন বাংলাদেশ টেলিভিশন চট্টগ্রাম কেন্দ্রের অনুষ্ঠান নির্মাণ ও পরিকল্পনায় শিল্পীদের সৃজনশীলতা দেখানোর কোনও সুযোগ নেই। তাড়াতাড়ি এসব সমস্যা সমাধান হওয়া উচিত।