“উড়ন্ত এডভেঞ্চার’র ভ্রমনে একদিন”- সাইফুল্লাহ মাহমুদ

‘উড়ন্ত এডভেঞ্চার’র ভ্রমনে একদিন’

সাইফুল্লাহ মাহমুদ,
হিল্লোল ভ্রমনের এক প্রিয় নাম ‌‌‌’ঊড়ন্ত এডভেঞ্চার’ এর উদ্যোগে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের চৌদ্দগ্রাম থেকে একটি হাইয়েস মাইক্রোবাস যোগে কিছু ভ্রমন পিপাসু যুবক রওয়ানা হয়েছিল অজানাকে জানার জন্য ।

চাঁদপুর শহরের কূল ঘেঁষে ভয়ে চলা তিন নদীর(পদ্মা,মেঘনা,ডাকাতিয়া) মোহনায় তারা বুধবার (৭ অক্টোবর) সকাল থেকে দুপুর সময় আড্ডায় কাটানোর পর খাবার গ্রহণ শেষে বিকেলে তারা বড় ইঞ্জিন চালিত নৌকা যোগে নদীতে মিনি কক্সবাজার নামে খ্যাত একটি স্পটে বেশ কিছুক্ষন সময় গানে গানে কাটায় । এরপর তারা আবার তীরে এসে হাঁটতে হাঁটতে দৃশ্যমান সবই সুন্দর অবলোকন করে ওখান থেকে আবার বিদায় নিল। তারপর সবাই মাগরীবের নামাজ শেষে রূপালী ইলিশের বাজারে যায় মাছ কেনার উদ্দেশ্যে।

এটা ব্যতিক্রম ও সুন্দর।এই ভ্রমনে উপস্থিত থেকে ধন্য করেছেন ঊড়ন্ত এডভেঞ্চারের উপদেষ্টা মন্ডলীর সদস্য ধোড়করা রেসিঃ স্কুল এর সহঃ প্রধান শিক্ষক জনাব অলি উল্লাহ সোহেল, যুব সমাজের আইডল আলী শাহেদ পাটোয়ারী,জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের মেধাবী ছাত্র সৌরভ আমান সহ আরো মেহমান। পরিচালকঃ সাইফুল্লাহ মাহমুদ রায়হান, সহঃ পরিচালক মু সাইফুল খোন্দকার, সার্বিক তত্ত্বাবধানে সেখানে প্রাকৃতিক দৃশ্য অবলোকন, একক, গ্রুপ ছবি, সেলফি তোলা পর্ব,নানান প্রতিভার অধিকারী সদস্য দের গান, কবিতা আবৃতি,কৌতুক এর মাঝেই চলতে থাকে তাদের দিনব্যাপী আয়োজন ।

চাঁদপুর শহরের পাশ ঘেঁসে ভয়ে যাওয়া তিন নদীর নৈস্বর্গিক বাতাস, পশু পাখির তর্জন-গর্জন ওঝরণার পানির ব্যতিক্রমী এক কোলাহলপূর্ণ খেলা এ যেন এক অন্য রকম আবহের সৃষ্টি করেছে। উপভোগ্য এই মনোরম দৃশ্য যেন ভুলার মত নয়। এমন নৈস্বর্গিক দৃশ্যগুলো ভ্রমণ পিপাসুদের প্রতিটি হৃদয়ে গেঁথে যাবে অনায়াশেই। আহ! যেন অন্য রকম অনুভূতি। ঊড়ন্ত এডভেঞ্চার এর সদস্য মু. শাহাদাত মাহমুদ এর গানে মাতিয়ে দিল পুরো ভ্রমন জুড়ে।

এতে ঊড়ন্ত এডভেঞ্চারের সম্মানিত পরিচালক ও সহঃ পরিচালক সকলের নিকট ভ্রমন বাস্তবায়নে সকলের নিকট সাহায্য ও সহযোগীতা চেয়ে আরো দিক নির্দেশনা মূলক কথা বলে সকলের পরামর্শ ডায়েরী তে নোট করেছে। সদস্যদের মধ্যে ছিলেন মু. সোহরাব হোসেন রুমন, আতিকুর রহমান রাজিব, ছাত্রনেতা শাহাদাত মাহমুদ, ছাত্রনেতা গাজী সাঈদ,সোহরাভ হোসেন জুয়েল,জুয়েল রানা, হোসেন রিয়াদ সহ প্রমুখ।