তরুণদের খেলাধুলার প্রতি অনিচ্ছাই ধর্ষনের হার বাড়িয়ে দিচ্ছে- আবিদ

হালিশহর প্রতিনিধি:
সামাজিক কাজে নতুনত্ব এনে জনপ্রিয় হয়ে উঠছে চট্টগ্রাম সৃষ্ট জাতীয় সামাজিক সংগঠন দূর্বার তারুণ্য। হাজার হাজার তরুণের স্বপ্নের সংগঠন এগিয়ে যাচ্ছে দূর্বার গতিতে। তরুণ- তরুনীরা এ সংগঠনের ইউনিক কাজ গুলোকে ইতিবাচক হিসেবে নিয়ে নিজেদেরও যুক্ত করছেন দূর্বার তারুণ্যের সাথে।

চট্টগ্রাম থেকে সৃষ্ট এ সংগঠন সবসময়ই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে জনপ্রিয়তার দিক থেকে নিজেদের দৃঢ় অবস্থান ধরে রেখেছে। মিডিয়া ও প্রেস মহলে দূর্বার তারুণ্যের রয়েছে একটা সুনাম।

আজ ৩রা অক্টোবর রোজ শনিবার হঠাৎ ই দূর্বার তারুণ্যের স্বপ্নদ্রষ্টা ও কেন্দ্রীয় সভাপতি মুহাম্মদ আবু আবিদ কোন প্রচার-প্রচারনা ছাড়াই সংগঠনের সদস্যদের নিয়ে মাঠে নেমে পড়ে, ক্রিকেট খেলা জন্য। সকালের আলো ফুটতে না ফুটতেই চট্টগ্রাম মহানগরের হালিশহর সাগর পাড়ের ফায়ারিং রেঞ্জ এ খেলাটি সম্পাদিত হয়। এসময় দূর্বার তারুণ্যের সদস্যরা ছাড়াও ছিল এলাকার ছেলেরা।

খেলায় আরও অংশ নেন, কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক মুহাম্মদ আবু আদিল, সাংগঠনিক সম্পাদক জিহাদুল ইসলাম জিদান, অর্থ বিষয়ক সম্পাদক রবিউল হাসান, গণশিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক সৈকত শর্মা পাপ্পুসহ দূর্বার তারুণ্যের অনেক সদস্যরা।

এসময়ে মুহাম্মদ আবু আবিদ বলেন, ধর্ষন এর মাত্রা দিনকে দিন বেড়ে চলেছে।তরুনদের খেলাধুলার সুযোগ না করে দেয়াও ধর্ষনের অন্যতম কারণ।সুস্থ সমাজ গড়তে হলে খেলাধুলা প্রয়োজন।তাই আমি সিদ্ধান্ত নিয়েছি দূর্বার তারুণ্যের সদস্যেরা বিভিন্ন জায়গায় একটা নির্দিষ্ট দিনে ক্রিকেট বা ফুটবল খেলার আয়োজন করবে। খেলাধুলা’র যেকোন সাহায্য করবে দূর্বার তারুণ্য।মাঠ পর্যায়ে খেলাকে আবার জনপ্রিয় করা তোলা লাগবে। খেলা শারীরিক ও মানসিক বিকাশ সাধন করে। তাই আমি মনে করি, যতই অনলাইন গেমে আমাদের তরুণ প্রজন্ম আসক্ত হোক না কেন, এখনও সুযোগ পেলে তারা বলের পেছনে দৌড়াবে। তাই আমি সকল অভিভাবকদের আহ্বান জানাই, দয়া করে আপনারা আপনার সন্তানকে খেলার সুযোগ দিন। তা না হলে ক্ষতিটা আপনারই।