‘শীতের রাতে গরম খাবার’ দূর্বার তারুণ্যের অসাধারণ উদ্যোগ

প্রেস বিজ্ঞপ্তিঃ
সারা বাংলাদেশে সাড়া জাগানো “তারুণ্যের সাথে, মানবতার পথে” এই স্লোগান নিয়ে দূর্বার গতিতে ছুটে যাচ্ছে সামাজিক সংগঠন দূর্বার তারুণ্য। দূর্বার তারুণ্য মানেই নতুন কোনো চমক, নতুন কোন ভিন্নধর্মী উদ্যোগ নিয়ে হাজির হওয়া।

অনন্য এসব উদ্যোগ গ্রহণ ও বাস্তবায়নের কারণেই অল্প সময়ে বেশ জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে সংগঠনটি। আলোচনায় শীর্ষে থাকা অন্যতম এই সংগঠনটির প্রধান হাতিয়ার ভিন্নধর্মী উদ্যোগ।

প্রায়ই সব সংগঠনের শীতকাল মানেই শীতার্ত মানুষকে বস্ত্রদান,কম্বল বিতরণ ইত্যাদি চিন্তাধারা বা কর্মসূচি গ্রহণ করে থাকে। কিন্তু বরাবরের মতো এইবারও অন্যান্য সংগঠনের গতানুগতিক ধারায় না এগিয়ে ভিন্নধারায় দূর্বার তারুণ্য। গত মঙ্গলবার (২ফেব্রুয়ারি) চট্টগ্রাম রেলওয়ে স্টেশনে অসহায় ও অনাহারী মানুষদের মাঝে খাদ্য বিতরণের মধ্য দিয়ে নজিরবিহীন প্রজেক্ট “শীতের রাতে গরম খাবার” উদ্বোধন করা হয়েছে। তারপর থেকেই চট্টগ্রামসহ দেশের নানান জায়গায় প্রকাশ্যে ও গোপনে খাদ্য বিতরণ করে যাচ্ছে দূর্বার তারুণ্য।

এ প্রজেক্টের আওতায় পুরো বাংলাদেশে প্রায় ২ হাজারের অধিক মানুষকে খাদ্য বিতরণ করা হয়েছে। চট্টগ্রামেই ১১ শতাধিক মানুষকে এই প্রজেক্টের মাধ্যমে খাদ্য বিতরণ করা হয়।

প্রচারবিমুখ এই সংগঠনটি আজ রোজ রবিবার রাত আটটায় চট্টগ্রাম রেলস্টেশনের ছিন্নমূল মানুষের জন্য গরম খাবারের আয়োজন করে। এরই মধ্য দিয়ে ৩ শতাধিক মানুষকে খাদ্য বিতরণ করা হয়।

সংগঠনটির স্বপ্নদ্রষ্টা ও কেন্দ্রীয় সভাপতি মুহাম্মদ আবু আবিদ বলেন, আমরা কাজ করে যাচ্ছি, নীরবে। আমাদের চিন্তাধারায় প্রচার টা বরাবরই কম। কারণ – আমরা কম কাজ করি, কিন্তু যা করি তা নিজেদের পকেটমানি থেকে। আমার মতে, ইচ্ছাশক্তি ও অদম্য আগ্রহ থাকলে সামাজিক কাজ কখনও অর্থের জন্য আটকে থাকতে পারে না। আমরা কোন কোম্পানি থেকে স্পন্সর নেয়ার চাইতে ১০০ জনের থেকে ৫০০ টাকা নেয়া বেশি সহজ মনে করি।

এসময় সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি আরও বলেন, যতদিন আমাদের সামর্থ্যে কুলাবে আমরা দিয়েই যাব। সকলে সহযোগিতা পেলে এ প্রজেক্ট আমরা চলমান রাখব।

উক্ত অনুষ্ঠানে অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন শেখ ইফতেখার সাইমুম চৌধুরী, দেবাশীষ পাল দেবু, সোনিয়া আজাদ, সাজ্জাদ হোসেন, হাসান জাহাঙ্গীর ও সঞ্চিতা তালুকদার।

এসময় আরও উপস্থিত ছিলেন দূর্বার তারুণ্য এর কেন্দ্রীয় কমিটি, চট্টগ্রাম জেলা ও কিশোরগঞ্জ জেলা শাখা কমিটির নেতৃত্ববৃন্দরা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here