পদ্মা সেতুতে গাড়ির গতি নিরবিচ্ছিন্ন রাখতে টোল আদায় হবে ইলেকট্রনিক ডিভাইসের মাধ্যমে

সিটি ডেস্ক:
গত ১০ ডিসেম্বর ৪২ তম স্প্যান বসানোর মধ্যে দিয়ে পদ্মা সেতুর স্প্যান বসানোর কার্যক্রম শেষ হয়।এতে দৃশ্যমান হয় ৬.১৫ কিলোমিটার স্বপ্নের পদ্মা সেতু। এখন যান চলাচল শুরুর অপেক্ষা স্বপ্নের পদ্মা সেতুতে।

ইতিমধ্যে সেতুর দুই প্রান্তে দুটি টোল প্লাজা তৈরি করা হয়েছে। তবে পদ্মা সেতুতে টোল দিতে থামতে হবে না কোনো গাড়িকে,২০১৯ সালে এ জন্য কোরিয়ান এক্সপ্রেসওয়ে কপোরেশানের সাথে করা চুক্তি অনুযায়ী এখানে অত্যাধুনিক ডিভাইসের মাধ্যমে ইলেট্রনিক পদ্ধতিতেই আদায় হবে টোল।

সেতুর দুই পাশে নির্মাণ করা হয়েছে দেশের প্রথম এক্সপ্রেসওয়ে।নির্মাণ কাজে ব্যয় ৩০ হাজার কোটি টাকা তুলে আনতে সেতুতে চলাচলকারী যানবাহনের জন্য একটি টোলের হার প্রস্তাব করেছে সেতু মন্ত্রণালয়। ১৫ বছর পর এ টোল আরও ১০ শতাংশ বাড়ানো হবে। মোট ৩৫ বছর আদায় করা হবে টোল।টোল থেকে আদায় করা অর্থ সেতুর রক্ষণাবেক্ষণের কাজে ব্যয় করা হবে। প্রতিদিন গড়ে ২৪ হাজার যানবাহন চলতে পারবে এ সেতুতে।

পদ্মা সেতু ২০২১ সালের জুনের মধ্যে যান চলাচলের জন্য উম্মুক্ত হচ্ছে বলে জানিয়েছেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here