দেশের ৬৪ জেলায় স্বপ্নদ্রষ্টার বৃক্ষরোপন সম্পন্ন!

নিজস্ব সংবাদদাতা,
গ্রীষ্মের প্রচন্ড দাবদাহের কবলে যখন সারাদেশের মানুষ অতিষ্ঠ, তাপমাত্রা বৃদ্ধি রেকর্ড যখন ছুঁইছুঁই করছিলো গোটা দেশজুড়ে — ঠিক সেই ক্রান্তিলগ্নে অন্যতম সংগঠন ” স্বপ্নদ্রষ্টার ” পরিবার হাতে নেওয়া হয় এক ব্যতিক্রমী উদ্যোগ। উদ্যোগটি হচ্ছে দেশের ৬৪ জেলাতে কমপক্ষে একটি করে গাছ লাগানো।

ওয়ারেন বাফেটের একটা কথা আছে, ” কেউ আজ ছায়ায় বসে আছে কারণ অনেকদিন আগে কেউ গাছ লাগিয়ে ছিলো। ”

এই পরিকল্পনা বাস্তবায়নে প্রায় এক মাসব্যাপী কাজ করে গেছে ” স্বপ্নদ্রষ্টার ” কয়েকশত স্বেচ্ছাসেবী এবং গতো ৫ই জুন, বিশ্ব পরিবেশ দিবসে সফলভাবে ইতি টানে এই বিশাল উদ্যোগের।

বহিতনেই ব্রাউন বলেছিলেন –
” বৃক্ষরোপণ করুন! কারণ, তারা আমাদের বেঁচে থাকার জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ দুটি উপাদান দেয়: অক্সিজেন এবং বই। ”

প্রতিটি জেলায় একটি করে গাছ লাগানোর উদ্যোগ থাকলেও বৃক্ষরোপণের প্রতি সাধারণ মানুষের আগ্রহ সৃষ্টি করতে এগিয়ে আসে জনপ্রিয় এবং বিশ্বস্ত অনলাইন বুকশপ ” বুক এক্সপ্রেস “। ” স্বপ্নদ্রষ্টা ” পরিবারের নেয়া এই যুগান্তকারী পদক্ষেপে একদিকে যেমন প্রকৃতিতে বিশুদ্ধ অক্সিজেন যুক্ত হলো; সেইসাথে সর্বাধিক সংখ্যক গাছ লাগিয়ে ” বুক এক্সপ্রেস ” এর পক্ষ থেকে জিতে নেয়ার সুযোগ ছিল ১ হাজার টাকা সমমূল্যের বই!

“স্বপ্নদ্রষ্টা “র এই দারুণ আয়োজনে সাড়া দিয়ে প্রতিটি জেলায় সর্বনিম্ন একটি এবং সর্বোচ্চ চল্লিশটির অধিক বৃক্ষরোপণের মাধ্যমে সারাদেশে মোট তিন শতাধিক নতুন বৃক্ষ রোপণ করা হয়েছে! পবিত্র ইদুল ফিতরের পর থেকে শুরু হওয়া এই ইভেন্টটির বিরাট এ মাইলফলক অর্জিত হয়েছে ৫ ই জুন; বিশ্ব পরিবেশ দিবসে।

করোনা মহামারীর প্রতিকূল পরিস্থিতিতেও আগামীর দিনগুলিতে পরিবেশের ভারসাম্য পুনঃপ্রতিষ্ঠার নিমিত্তে ” স্বপ্নদ্রষ্টা ” সংগঠনের নেওয়া এই উদ্যোগ বাস্তবায়নে যারা অক্লান্ত পরিশ্রম করে গেছেন-” স্বপ্নদ্রষ্টা ” পরিবার তাদের কাছে চিরকৃতজ্ঞ। মাঠপর্যায়ের যোগাযোগ ছাড়া কেবলমাত্র অনলাইন প্রচারণায় সাড়া দিয়ে সারাদেশে ” স্বপ্নদ্রষ্টা ” কে পৌঁছে দেয়ার সফল এ আয়োজন সুফল বয়ে আনুক গোটা দেশের সর্বস্তরের মানুষের জন্য।

”স্বপ্নদ্রষ্টা ” সংগঠন বাস্তবায়ন করে দেখিয়েছে, চাইলেই সম্ভব। ভালো কাজে মানুষের দারুণ সারা পাওয়া গিয়েছে প্রতিবারের মতই। ৬৪ জেলায় পৌঁছে গেলো স্বপ্নদ্রষ্টা, রোপিত হলো তিন শতাধিক গাছ।

দারুণ এই সময়োপযোগী উদ্যোগটি সফলভাবে বাস্তবায়নের পর ছোট বেলার আরেকটি কবিতা আমাদের মনে পড়ে যায়, কবিতার লাইন ছিল- ‘আমাদের দেশে হবে সেই ছেলে কবে, কথায় না বড় হয়ে কাজে বড় হবে’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here