কোদাল দিয়ে কান কেটে দিয়েছে দিনমজুরের; প্রতিবাদ করায় ফের হামলা!

নিজস্ব প্রতিনিধি:
চট্টগ্রামের বোয়ালখালীতে তুচ্ছ ঘটনায় দুলাল ঘোষ (৪৫) নামের এক দিনমজুরের কান কেটে দিয়েছে দুর্বৃত্তরা। গত মঙ্গলবার (২ আগস্ট) সকাল ১০টার দিকে উপজেলার পশ্চিম শাকপুরা সধারাম পাড়ায় এ ঘটনা ঘটে।

এদিকে কান কাটার ঘটনার প্রতিবাদ করায় বুধবার দুলাল ঘোষের স্ত্রী ও মায়ের ওপর দফায় দফায় হামলা করা হয়েছে। এতে আতঙ্কিত হয়ে পড়েছেন দুলাল ঘোষের পরিবার।

জানা গেছে, মঙ্গলবার দুপুরে ইউপি সদস্য অনুপ দাশ আগামী শুক্রবার স্থানীয়ভাবে ঘটনাটি মীমাংসা করার আশ্বাস দিয়ে থানায় অভিযোগ না দেওয়ার পরামর্শ দেন দুলাল ঘোষকে। ওইদিন বিকেলে আবারো দিনমজুর দুলাল ঘোষের স্ত্রী টিংকু ঘোষ (৩০) ও বৃদ্ধ মা শোভা ঘোষকে (৭০) মারধর করা হয়। দফায় দফায় হামলা ও মারধরের ঘটনায় আতঙ্কিত দিনমজুর দুলাল ঘোষ নিজের ঘরবাড়ি ছেড়ে এক প্রতিবেশির ঘরে আশ্রয় নিয়েছেন।হামলাকারীরা বুধবার (৩ আগস্ট) দুলাল ঘোষকে আশ্রয় দেওয়ায় পরিবারটিকেও হুমকি ধমকি দিচ্ছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

হামলায় আহত দুলাল ঘোষ পশ্চিম শাকপুরা সধারাম পাড়ার মৃত নেপাল ঘোষের ছেলে। তিনি দিনমজুরি কাজের পাশাপাশি ২টি গাভী পালন করে সংসার চালান।

দুলাল ঘোষ বলেন, গত সোমবার দিবাগত রাত আড়াইটার সময় গোয়াল ঘরের সামনে স্থানীয় অঞ্জন চৌধুরীকে দেখতে পাই। এসময় সে গোয়াল ঘরের তালা ধরে টানাটানি করছিলো। সে আমাকে দেখতে পেয়ে দৌঁড়ে চলে যায়।

তিনি জানান, এ বিষয়ে জানতে চাইলে অঞ্জনের ছোট ভাই বিপ্লব চৌধুরী কোদাল দিয়ে মাথায় কোপ দেয়। এতে দুলাল ঘোষের কান কেটে যায়। কান কেটে যাওয়ায় উপজেলা হাসপাতালে চিকিৎসা নিয়ে তিনি স্থানীয় ইউপি সদস্যকে জানালে বিষয়টি মীমাংসার কথা বলে বাড়ি ফিরে যেতে বলেন ইউপি সদস্য অনুপ দাশ। বাড়ি ফিরে আসলে অঞ্জন আরো লোকজন যোগাড় করে আবারো হামলা চালায় দুলাল ঘোষের মা ও স্ত্রীর ওপর।

স্থানীয়রা জানান, অঞ্জন চৌধুরী ও বিপ্লব চৌধুরী দুলাল ঘোষের ওপর হামলা চালিয়ে আহত করে উল্টো অভিযোগ করে দিয়েছে থানায়। স্থানীয়দের অভিযোগ সধারামপাড়ায় মাদকের ছড়াছড়ি। সন্ধ্যা হলেই বসে মাদকে হাট। বেড়েছে গরু চুরিও। দফায় দফায় হামলা হওয়ায় দুলাল ঘোষ ও তার পরিবার আতঙ্কের মধ্যে রয়েছে।

এ ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে ইউপি সদস্য অনুপ দাশ বলেন, বিষয়টি সামাজিকভাবে সমাধানের চেষ্টা চলছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here