আনোয়ারায় সাগরের মাছ শিকারের খুঁটি নিয়ে প্রতিপক্ষের হামলা ও লুটপাট, থানায় অভিযোগ

আনোয়ারা প্রতিনিধি,
আনোয়ারা উপজেলা ৩নং রায়পুর ইউনিয়নের উপকূলীয় সাগরের মাছ শিকারের খুঁটি সংক্রান্ত বিষয় নিয়ে প্রতিপক্ষের হামলার হামলা ও মালামাল লুট করা নিয়ে আনোয়ারা থানায় অভিযোগ করেছেন শিবলু হোসেন ইমন(২৮) নামের এক মাছ ব্যবসায়ী।

তিনি গতকাল আহত অবস্থায় আনোয়ারা মেডিকেলে চিকিৎসা নিয়ে রায়পুর ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ডের আবদুল মোনাফ মনুর ছেলে মোঃ সেলিম(৩৫) মোঃ মিন্টু(৩৩) মোঃ গিয়াস(৩১) মোঃ শাহেদ সহ অজ্ঞাত আবু বক্কর(৪০) ও বাবু(৩০),র বিরুদ্ধে আনোয়ারা থানায় একটি অভিযোগ করেন।

অভিযোগ সুত্রে জানা যায়,গত ৩১ আগষ্ট রাত ১০টার দিকে দোভাষীর ঘাটে মাছের গদি থেকে নিজস্ব ইন্জিন চালিত বোট নিয়ে মাছ শিকারের প্রস্তুতি নেওয়ার মুহুর্তে বিবাদীগণ লাটিসোটা ও রড নিয়ে শিবলু হোসেন ইমনকে একলা পেয়ে এলোপাথাড়ি পিটিয়ে জখম করে বুটে থাকা নগদ বিশ হাজার টাকা,১০০টি টাগ/ফোলা,১৫টি টং জাল,৬০টি টারা রশি,২টি কন্টেইনার ডিজেল তেল, জেলেদের খাবারের জন্য কিনা সদাইপাতি সহ অনুমানিক চার লক্ষ উনচল্লিশ হাজার টাকার নগদ অর্থ ও মালামাল লুট করে নিয়ে যায়।

পরে স্থানীয়রা ঘটনাস্থল এসে ইমনকে আহত অবস্থায় উদ্ধার করে বাসায় নিয়ে আসে এবং বিবাদীগণ উক্ত ঘটানায় কোন প্রকার মামলা মোকাদ্দমা করিলে পুনরায় সাগরে বুট নিয়ে গেলে বুট ডুবাইয়া দিয়ে মারধর করে হত্যার হুমকি ও ভয়ভীতি প্রদর্শন করেন।

ভুক্তভোগী মাছ ব্যবসায়ী মোঃ জাহেদ জানান,আমাদের সাথে আব্দুল মোনাফ মনুর গংদের সাথে কিছুদিন আগে সাগরে মাছ শিকারে একটি ফার(খুঁটি) নিয়ে সমস্যা চলে আসছিল।এটা স্থানীয় এবং নৌ পুলিশদের সাথে বসে মীমাংসা হয়েছে যে আমি যেখানে মাছ শিকারের খুঁটি করেছি সেটার মূল্য তারা পরিশোধ করে দিলে আমরা ছেড়ে দিব।ঘটনার দিন আমরা ঐ ফারে(খুঁটিতে) আমরা জাল বসাতে যাইনি।আমরা আমাদের অন্যত্র একটিতে খুঁটিতে জাল বসাতে যাওয়ার প্রস্তুতিকালে তারা আমার উপর হামলা করে আমাদের সবকিছু লুটপাট করে নিয়ে গেছে।এখন আমরা অসহায়ত্ব ও নিরাপত্তাহীনতায় জীবন যাপন করতেছি।

এ বিষয়ে বিবাদী মোঃ সেলিমের মুটোফোনে যোগাযোগ করা হলে ফোনে পাওয়া যাইনি।

অভিযোগের ব্যপারে আনোয়ারা থানার অফিসার ইনচার্জ(ওসি) দুলাল মাহমুদের কাছে জানতে চাইলে তিনি জানান,রায়পুর ইউনিয়নে গহিরা দোভাষীর হাট এলাকা শিবলু হোসেন ইমন নামের একজন ব্যক্তি গতকাল আনোয়ারা থানায় আবদুল মোনাফ মনুর গংদের বিরুদ্ধে একটি অভিযোগ দায়ের করেন। ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে প্রকৃত দোষীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা করা হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here